দুবলিয়া স্কুলের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেনের অপসারণ দাবি! দুবলিয়া স্কুলের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেনের অপসারণ দাবি! – দৈনিক পাবনা
  1. admin@dainikpabna.com : admin :
  2. rakibhasnatpabna@gmail.com : Rakib Hasnat : Rakib Hasnat
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:২২ অপরাহ্ন
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৪:২২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
৮ বছর আগে মারা গেছেন, প্রধান আসামি করে ভূমি কর্মকর্তার মামলা! চরতারাপুরে শিক্ষককে কুপিয়ে হত্যাচেষ্টা মামলার আসামী আমিরুল গ্রেপ্তার সাদুল্লাপুর ইউনিয়নে দৃষ্টিনন্দন ‘গোলঘর’ শুভ উদ্বোধন  পাবনায় দপ্তরীর হাতে প্রাথমিক শিক্ষক লাঞ্চিত পাবনা বিআরটিএ অফিসে দালালদের আখড়া, টাকা ছাড়া ফাইল জমা হয়না! শরীফার গল্প’ নিয়ে যে সিদ্ধান্ত হলো সেন্টমার্টিনে বেড়াতে গিয়ে বিসিএস ক্যাডার হ্যাপী নিখোঁজ সুজানগরে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী শাহিনুজ্জামান শাহীনের উঠান বৈঠক পাবনায় ব্র্যাক স্কুলে মেয়েদের ক্রিকেট-ফুটবল প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ পাবনায় যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালন

দুবলিয়া স্কুলের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেনের অপসারণ দাবি!

নিজস্ব প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : ১ বছর আগে
  • ৬২ বার পঠিত
ইনসেটে মো: আনোয়ার হোসেন

পাবনা সদর উপজেলার দুবলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের আলোচিত-সমালোচিত প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেনকে দুর্নীতিবাজ ও অযোগ্য আখ্যায়িত করে তার অপসারণ এবং নতুন নির্বাচিত ম্যানেজিং কমিটির দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালন করছেন স্কুলের সকল শিক্ষকরা।

সোমবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে কর্মবিরতি চলছে। বিদ্যালয়ের প্রধান ভবনের ব্যানার ঝুলিয়ে অনির্দিষ্টকালের এই কর্মবিরতি শুরু করেন শিক্ষকরা।

শিক্ষকরা বলেন, প্রধান শিক্ষক আমাদের নিয়মিত বেতন ভাতা আটকে রেখেছেন। আমাদের শিক্ষকদের প্রায় ৩০ লক্ষ টাকার বেতন-ভাতার তালিকায় উনি কৌশলে স্বাক্ষর না করে আটকে রেখেছেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেনের নানা অনিয়ম ও দুর্নীতি ইতোমধ্যেই গণমাধ্যমে উঠে এসেছে। প্রধান শিক্ষক ব্যক্তিগত স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করেন। এছাড়াও রাজনৈতিক প্রভাবের কারণে বিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ বিঘ্নিত হচ্ছে। রাজনৈতিক প্রভাবের কারণে দীর্ঘদিন ধরে সেখানে ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনও হয় না। কমিটি না থাকায় আমাদের দাবিদাওয়া উপস্থাপন করতে পারি না।

তারা আরও বলেন, বিদ্যালয়ের মালিকানাধীন দুটি দোকান বিক্রি করে ৯ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন প্রধান শিক্ষক, যা প্রমাণিত। কিন্তু তার এমন সব দুর্নীতি প্রতিবাদ করায় শিক্ষকদেরকে নানাভাবে হয়রানি করা হচ্ছে। বহিরাগতদের বিদ্যালয়ে এনে আন্দোলনরত শিক্ষকদের হুমকি ধামকি দেয়া হচ্ছে। এছাড়াও রাজনৈতিক প্রভাবশালী ব্যক্তি ও সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ে বিশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তৈরি করতে চাচ্ছেন।

এসময় শিক্ষকরা বেশ কয়েক দফা দাবি তুলে ধরেন। দাবিগুলো হলো- সকল শিক্ষক ও কর্মচারীদের সরকারি বেতন প্রধান শিক্ষক কর্তৃক বন্ধ রাখার বিচার দাবি; বিগত এক বছর ধরে সিনিয়র শিক্ষকদের উচ্চতর বেতন স্কেল কেন বন্ধ রাখা হলো জবাব চাই; রেজুলেশন অনুযায়ী শিক্ষকদের বিএড স্কেল দীর্ঘদিন যাবত বন্ধ কেন জবাব চাই; ২০১৫ থেকে ২০২২ অর্থ বছরের আয়-ব্যয়ের হিসাব দিতে হবে; শিক্ষকদের বাড়ি ভাড়া চিকিৎসা ভাতা ও উৎসব ভাতা দিতে হবে; প্রধান শিক্ষক কর্তৃক বহিরাগত ভাড়াটিয়া স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি দ্বারা শিক্ষকদের লাঞ্চিত করার বিচার চাই; শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার সুষ্ঠু পরিবেশ চাই এবং প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগ তদন্ত করে অপসারণ পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এদিকে শিক্ষক ও প্রধান শিক্ষকের মধ্যে সৃষ্টি সংকট নিরসনে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সমস্যা দ্রুত সমাধান করে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জোর দাবি জানান তারা।

শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের সামনে এসএসসি পরীক্ষা। কিন্তু আমরা অত্যন্ত দুশ্চিন্তায় আছি। কারণ দীর্ঘদিন ধরে আমাদের এখানে নিয়মিত ক্লাস হচ্ছে না। শিক্ষকদের এই সমস্যা অব্যাহত থাকলে আমাদের আগামী পরীক্ষাগুলোতে ফলাফলের ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে। তাই শিক্ষা অফিসসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষর কাছে আমাদের আবেদন তারা যেন এসে আমাদের বিদ্যালয়ের সমস্যা দ্রুত সমাধান করে দেন।

শিক্ষকদের এমন কর্মসূচি ঘোষণার পরে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে পাওয়া যায়নি। তার রুম তালাবদ্ধ পাওয়া গেছে। মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও এ বিষয়ে তার কোন মন্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

পাবনা জলা শিক্ষা অফিসার রোস্তম আলী হেলালী বলেন, দুবলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের আন্দোলনের বিষয়টি আমরা অবগত হয়েছি। আন্দোলরত শিক্ষকদের সঙ্গে কথাও বলেছি। তাদের দাবি সম্বলিত একটি লিখিত অভিযোগও শিক্ষা অফিসে জমা দিতে বলেছি। আগামীকাল মঙ্গলবার ওই বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষকদের নিয়ে আমরা বসব। ইতোমধ্যে অফিসিয়ালি চিঠি আমরা সংশ্লিষ্ট সকল জায়গায় পাঠিয়েছি। শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যত নষ্ট হয়ে এমন কিছু করতে দেওয়া হবে না। আর প্রধান শিক্ষকে বিরুদ্ধে অভিযোগ ডিসি অফিসের মাধ্যমে মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে।

পাবনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মাহফুজা সুলতানা বলেন, দুবলিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগপত্র মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে। সেখান থেকে এখনো কোন নির্দেশনা আসেনি। নির্দেশনা আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে শিক্ষকদের চলমান কর্মবিরতির বিষয়ে আমি এখনো অবগত হইনি। এ বিষয়ে শিক্ষা অফিসারের মাধ্যমে খোজঁখবর নিয়ে বিষয়টি দেখা হবে।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ দৈনিক পাবনা
Themes Customized By Shakil IT Park