‘ইভিএম বুঝি না, নির্বাচনের আগে কেউ শিখিয়েও দেয়নি’ ‘ইভিএম বুঝি না, নির্বাচনের আগে কেউ শিখিয়েও দেয়নি’ – দৈনিক পাবনা
  1. admin@dainikpabna.com : admin :
  2. rakibhasnatpabna@gmail.com : Rakib Hasnat : Rakib Hasnat
মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:০৭ পূর্বাহ্ন
মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৪:০৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
কুমারখালীতে ৪০ কেজি ওজনের গাঁজার গাছসহ আটক ১ পাবনায় শিক্ষকদের বরণ ও প্রাথমিক শিক্ষা পদক অনুষ্ঠান দিনে শুনসান নিরবতা, আঁধার নামলেই শুরু হয় সুজানগরে বালু উত্তোলনের মহোৎসব  পাবনায় বই মেলার উদ্বোধন করলেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পীকার পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মোশাররফ মারা গেছেন ভাষার জন্য প্রাণ দেওয়া বিশ্বে অনন্য উদাহরণ : সেনাপ্রধান  পাাবনায় ইন্টার্ন নার্সকে মারধরের প্রতিবাদে তৃতীয়দিনে কর্মবিরতি রূপপুর নিয়ে প্রশ্ন করায় ক্ষেপে গেলেন মন্ত্রী ইয়াফেস, জড়ালেন তর্কে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের নার্সকে মারধরের অভিযোগ দালালের বিরুদ্ধে ‘আমার সঙ্গে আল্লাহ ছাড়া কেউ নেই, এজন্য বিচারও চাইনি!’

‘ইভিএম বুঝি না, নির্বাচনের আগে কেউ শিখিয়েও দেয়নি’

দৈনিক পাবনা ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ৬ মাস আগে
  • ৬৫ বার পঠিত

পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার করমজা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোটগ্রহণের শুরুতেই ব্যাপক জটিলতা দেখা দিয়েছে। অনেক ভোটার অজ্ঞতার কারণে ভোট দিতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন। অনেক বুথে ইভিএম মেশিনেও ত্রুটি দেখা দিয়েছে। এতে ভোটগ্রহণে ধীরগতি দেখা দিয়েছে। 

বুধবার (২৭ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আফড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও পুন্ডুরিয়া দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্রসহ কয়েকটি কেন্দ্রে ঘুরে ইভিএমে ভোটগ্রহণে জটিলতা দেখা গেছে।

এছাড়াও ভোটকক্ষে দায়িত্বরত পোলিং অফিসারদের ভোটারদের সঙ্গে গোপন কক্ষে ঢুকতে দেখা গেছে। তবে তাদের দাবি- ‘ভোটাররা বুঝতে পারছেন না। তাই তাদের দেখিয়ে দেওয়ার জন্য সকল প্রার্থীর এজেন্টদের অনুমতি নিয়েই ঢোকা হচ্ছে। আমরা শুধু দেখিয়ে দিচ্ছি, ভোটাররা তাদের পছন্দ মতো প্রতীকেই ভোট দিচ্ছেন।’

আফড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দিতে আসা আফুজা খাতুন নামে এক বৃদ্ধা জানান, খুব সকালে ভোট দিতে আসছিলাম। রোদে লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে ১০টার দিকে সিরিয়াল পাওয়ার পর ভোট দিতে গিয়ে আঙুলের ছাপ না মেলায়  ভোট না দিয়ে ফিরে যাচ্ছি। এখানকার কর্মকর্তারা পরে আসতে বলেছেন।

মরিয়ম নামে এক গৃহবধূ জানান, অনেক আশা নিয়ে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিব বলে তিন ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকি। পরে ইভিএম জটিলতায় ভোট দিতে পারিনি। আমরা ইভিএম বুঝি না। নির্বাচনের আগে কেউ আমাদের বিষয়টি শিখিয়েও দেয়নি। সেজন্য ভোটও দিতে পারছি না। তাই বাড়িতে ফিরে যাচ্ছি।

ওই কেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন ঢাকা পোস্টকে বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ হচ্ছে। তবে কিছুটা ইভিএম জটিলতার কারণে ভোটগ্রহণে ধীরগতি দেখা দিয়েছে। ইভিএম জটিলতা দূর করতে আমরা কাজ করছি। আশা করি দ্রুতই ঠিক হয়ে যাবে। সবাইকে ধৈর্য ধরে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকার অনুরোধ করেন তিনি।

ভোটগ্রহণ নিয়ে মোটামুটি সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বিএনপি নেতা রইস উদ্দিন। তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ হচ্ছে। পুলিশ প্রশাসনও বেশ ইতিবাচকভাবে তৎপরতা চালাচ্ছেন। কিন্তু আমরা কেন্দ্রে ব্যাপক বহিরাগতদের দেখতে পাচ্ছি। আর বড় সমস্যা হচ্ছে- ইভিএমে ব্যাপক জটিলতা দেখা দিচ্ছে। অনেক ইভিএম নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। অনেক ভোটার ইভিএমে ভোট দিতে পারছেন না। ভোটের আগে তাদেরকে ঠিকমতো প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়নি। আজকে অনেক ভোটার ভোট দিতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন।

আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী হোসেন আলী বাগছী বলেন, খুবই সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ হচ্ছে। আমার কোনো লোক কেন্দ্র দখল বা কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার সঙ্গে জড়িত নেই।

নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক বলেন, নির্বাচনী পরিবেশ শান্তিপূর্ণ রয়েছে। সহিংসতা বা প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করা হলে কোনো প্রকারের ছাড় দেওয়া হবে না।

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ দৈনিক পাবনা
Themes Customized By Shakil IT Park