আসামির স্ত্রী মা হতে চাওয়ায় স্বামীকে ১৫ দিনের মুক্তি! আসামির স্ত্রী মা হতে চাওয়ায় স্বামীকে ১৫ দিনের মুক্তি! – দৈনিক পাবনা
  1. admin@dainikpabna.com : admin :
  2. rakibhasnatpabna@gmail.com : Rakib Hasnat : Rakib Hasnat
সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৪১ পূর্বাহ্ন
সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৩:৪১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
শিমুল বিশ্বাসের মুক্তির দাবিতে পাবনায় বিএনপির বিশাল বিক্ষোভ মিছিল  শিক্ষার্থীদের নিকট সংগ্রামের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরা শিক্ষকদের দায়িত্ব- ডেপুটি স্পীকার জাতিকে এগিয়ে নেয়ার পথে ইতিহাস, ঐতিহ‌্য ও অভিজ্ঞতা বিনিময় জরুরী- ডেপুটি স্পীকার আগামী রোববার পাবনার খাজানগরে মহাপবিত্র ইছালে ছাওয়াব মাহফিল!  কাজিরহাটকে যুক্ত করে পদ্মা-যমুনার মোহনায় ওয়াই আকৃতির সেতু বা টানেলের প্রস্তাব রূপপুরের পণ্যবোঝাই রুশ জাহাজ চীনের পথে পাবনার সেই ঘটনার আসামিরা ঘুরছে প্রকাশ্যে, বাদীরা আতঙ্কে উপজেলা শিক্ষা অফিসার, এ,কে,এম, রেজাউল হক আর নেই ঐতিহ্যবাহী চড়াডাঙ্গা দরবার শরীফে ইছালে ছাওয়াব মাহফিল অনুষ্ঠিত দুর্নীতি ও রাজনৈতিক প্রভাবমুক্তের দাবিতে দুবলিয়া স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন 

আসামির স্ত্রী মা হতে চাওয়ায় স্বামীকে ১৫ দিনের মুক্তি!

দৈনিক পাবনা ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১০ মাস আগে
  • ১০৫ বার পঠিত

মাতৃত্বের অধিকার দাবি করে এক নারীর আবেদনে জেলে থাকা স্বামীকে শর্ত সাপেক্ষে (প্যারোলে) ১৫ দিনের জন্য মুক্তি দিয়েছে ভারতের একটি আদালত।

স্ত্রীকে গর্ভধারণের সুযোগ দিয়ে খুনের মামলায় দণ্ডিত স্বামী নন্দলালকে (৩৪) মুক্তি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে জোধপুর হাইকোর্ট।

বিচারক সন্দীপ মেহতা এ আদেশের পর্যবেক্ষণে জানিয়েছেন, আদালত মনে করছে, এটা তার অধিকার। এই অধিকার থেকে কোনো নারীকে আইন বঞ্চিত করতে পারে না।

খুনের মামলায় নন্দলালকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছিল রাজস্থানের ভিলওয়াড়া আদালত। রায়ের পর বেশ কয়েক বছর ধরে তিনি কারাভোগ করছেন।

সম্প্রতি জোধপুর হাইকোর্টে তার স্ত্রী রেখা আবেদন করেন, তিনি মা হতে চান। স্বামী জেলে থাকায় তা সম্ভব হচ্ছে না। একজন নারীর সন্তানধারণ প্রাথমিক অধিকারের মধ্যে পড়ে।

আদালতের পর্যবেক্ষণে বলা হয় নন্দলাল জেলে থাকায় তার স্ত্রীর জীবনে প্রভাব পড়ছে। কিন্তু রেখা তো কোনও দোষ করেননি। ফলে তার দাবি গ্রহণযোগ্য।

বংশ বিস্তার ও সংরক্ষণ ভারতীয় সংস্কৃতি এবং ধর্মীয় দর্শনের মধ্যে পড়ে জানিয়ে বলা হয়, আদালত এর আইনগত বিষয়টি নজরে রেখেছে।

নন্দলালকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়ার ক্ষেত্রে আদালত হিন্দু শাস্ত্র, বিশেষত ঋগ্বেদের প্রসঙ্গ তুলে ধরে। পাশাপাশি ইহুদি, খ্রিস্টান ও ইসলাম ধর্মের প্রসঙ্গ টানা হয়।

আদালত জানায়, নন্দলাল প্যারোলের সুবিধা পেতে পারেন। তাছাড়া একজন বন্দিকে প্যারোলে মুক্তি দেওয়ার উদ্দেশ্য, শান্তিপূর্ণভাবে সমাজের মূল স্রোতে ফেরার ক্ষেত্রে তাকে উৎসাহী করা।

এর আগে ২০ দিনের জন্য প্যারোলে মুক্তি পান নন্দলাল। সে সময় ভাল আচরণের পাশাপাশি মেয়াদ শেষ হওয়ার পর আত্মসমর্পণ করায় সন্তুষ্টি জানিয়েছিল আদালত।

সুত্রঃ আনন্দবাজার

এ জাতীয় আরও খবর

যুক্তরাজ্যের পুলিশ বাহিনীর কিছু সদস্যের বিরুদ্ধে ভয়াবহ অভিযোগ উঠেছে। লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশের এক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ২৪টি ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে তোলপাড় শুরু হয়েছে ব্রিটেনে। এ ঘটনায় পুলিশ বাহিনীর ভেতরে শুদ্ধি অভিযান জোরদার করা হয়েছে। খবর নিউইয়র্ক টাইমসের। ডেভিড ক্যারিক নামের ওই কর্মকর্তার কাছে ২৪ জন নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। এছাড়াও নির্যাতন, মিথ্যা কারণ দেখিয়ে গ্রেফতারসহ ৪৯টি অপরাধের দায় স্বীকার করেছেন তিনি। ক্ষমতা কাজে লাগিয়ে ভয়ভীতিও দেখাতেন ভুক্তভোগীদের। দায়িত্বরত একজন পুলিশ কর্মকর্তার এমন ভয়াবহ অপরাধে নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। লন্ডন পুলিশ কমিশনার মার্ক রোলে বলেন, ডেভিড ক্যারিকের অপরাধ অত্যন্ত গুরুতর। ভুক্তভোগীদের সাথে তিনি ঘৃণ্য অপরাধ করেছেন। যারা সাহস করে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন, তাদের পদক্ষেপ আসলেই প্রশংসনীয়। একজন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য হয়েও এমন কাজ ক্ষমার অযোগ্য। গত কয়েক বছর ধরেই ব্রিটিশ পুলিশের বিরুদ্ধে উঠছিল একের পর অপরাধের অভিযোগ। যা নিয়ে তৎপরও ছিল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু এর মাঝেই ডেভিড ক্যারিকের স্বীকারোক্তি তোলপাড় সৃষ্টি করেছে। পুলিশ বাহিনীর মাঝে জোরালো হয়েছে শুদ্ধি অভিযান। লন্ডন পুলিশ তথ্যমতে, বর্তমানে আট শতাধিক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হাজারের বেশি যৌন নিপীড়ন এবং নির্যাতনের অভিযোগ নিয়ে চলছে তদন্ত। বহু পুলিশ সদস্য চাকরি হারাবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে। সুকৌশলে পুলিশে নিযুক্ত সব সদস্যের বিষয়ে অনুসন্ধান চালানো হচ্ছে। কারো বিরুদ্ধে পারিবারিক নির্যাতন বা যৌন হয়রানির অভিযোগ আছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হবে, তাদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনা হবে। এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাক। অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনার আশ্বাস দেয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। যুক্তরাজ্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সুয়েলা ব্রাভারম্যান বলেন, ভুক্তভোগীদের প্রতি আমার সমবেদনা। জনগণকে আশ্বস্ত করতে চাই যে, পুলিশ বাহিনীকে চ্যালেঞ্জ করতে সরকার পিছপা হবে না। দুর্নীতিবাজ পুলিশ কর্মকর্তাদের খুঁজে বের করতে জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। পরিবর্তন অবশ্যই আসবে। দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে আমার ক্ষমতা বলে যতখানি করা সম্ভব তা আমি করবো। পুলিশ বাহিনীকে পুনরায় জনগণের আস্থা অর্জনে পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছে সুনাক প্রশাসন। একইসাথে নারীদের ঘরে ও বাইরে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেও দেয়া হয়েছে নির্দেশনা।

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২২ দৈনিক পাবনা
Themes Customized By Shakil IT Park